রবিবার, ১৪ Jul ২০২৪, ০৮:৪৮ অপরাহ্ন

আপডেট
*** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***                     *** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***
সংবাদ শিরোনাম :
বেনাপোলে গ্লোবাল ইসলামী ব্যাংকের ১০৪তম শাখা উদ্বোধন নাটোরে সরকারী খাল খননে অনিয়ম, প্রভাবশালী নেতার শশুরের বাড়ী বাঁচাতে সরকারের ব্যয় ৮৮ লক্ষ টাকা। ‘স্যার’ না বলায় সাংবাদিককে তথ্য দিলেন না বন্দর পরিচালক রেজাউল বেনাপোলে নারী চক্রের ফাঁদে ব্ল্যাকমেইলের শিকার ব্যবসায়ীরা বেনাপোলে ঐতিহ্যবাহী বড়আঁচড়া স্কুল মাঠ ফিরে পাবার দাবিতে মানববন্ধন সোনাইমুড়ীতে গাড়ী চাপায় ভাই-বোনের মৃত্যু বেনাপোল উদ্ভিদ সংগনিরোধ কেন্দ্রে পিসি সার্টিফিকেটে রমরমা ঘুষ বাণিজ্যে বেনাপোল বন্দরে আমদানি পণ্যর ট্রাক থেকে ফেন্সিডিল উদ্ধার সোনাইমুড়ীতে পুলিশে সদস্যের স্ত্রী প্রেমিক সহ আটক  বেনাপোলে অবৈধ করাতকলের বিদ্যুৎ সংযোগ নিতে তদবির মিশনে ৬ মিল মালিক

কিশোর গ্যাংয়ের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার

কিশোর গ্যাংয়ের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার

মোহাম্মদ শাহ্ জালাল:

রাজধানীর মুগদা থানা এলাকায় কিশোর গ্যাংবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে দুটি কিশোর গ্যাংয়ের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মুগদা থানা পুলিশ। গ্যাং দুটি হলো; চাঁন-জাদু গ্রুপ ও ব্যান্ডেজ গ্রুপ।

 

২২ জুন, ২০২১ (মঙ্গলবার) দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত মুগদা থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতদের নাম; চাঁন-জাদু গ্রুপের নেতৃত্বদানকারী মোঃ জাদু, মোঃ রবিন ও নয়ন ইসলাম শুভ এবং ব্যান্ডেজ গ্রুপের মোঃ হিরা ও মোঃ রিপন।

বুধবার (২৩ জুন, ২০২১) বেলা ১১:০০ টায় ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান উপ-পুলিশ কমিশনার (মতিঝিল) মোঃ আঃ আহাদ, পিপিএম (বার)।

উপ-পুলিশ কমিশনার (মতিঝিল) মোঃ আঃ আহাদ বলেন, মতিঝিল এলাকায় দুটি কিশোর গ্যাং গ্রুপ সক্রিয়। গ্যাং দুটি হলো, চাঁন জাদু গ্রুপ ও ব্যান্ডেজ গ্রুপ। মতিঝিল বিভাগ এ গ্যাং গ্রুপের সাথে জড়িত সকলকে চিহ্নিত করে তাদের একটা তালিকা প্রস্তুত করেছে। তালিকাভুক্ত সকলকে গ্রেফতারে মতিঝিল বিভাগের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তিনি বলেন, তারা গ্যাং কালচারের নামে নিজেদের হিরোইজম প্রদর্শন করতো। তারা পরিবারে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি ও সমাজে অরাজকতা তৈরি করতো। তারা দল বেঁধে চলাফেরা করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে। কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা বিভিন্ন স্থানে তাদের নির্দিষ্ট গ্রুপের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মারামারিতে লিপ্ত হতো। এ সকল কিশোর রাস্তায় চলাচলরত মেয়েদের ইভটিজিং করতো।

তিনি আরো বলেন, এ গ্যাং ২টির সদস্যরা বিভিন্ন অনলাইন গেমের নামে সমবয়সী কিশোরদের সংঘবদ্ধ করে জুয়া খেলতে উৎসাহ প্রদান করে। গ্যাং এর সদস্যরা চুরি, ছিনতাই ও সিঁধেল চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধে জড়িত হয় মর্মে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা।

কিশোর গ্যাং গ্রেফতার প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ডিএমপি মুগদাথানা পুলিশ ইনচার্জ প্রলয় কুমার সাহা জানান, ‘আমরা মাদক ও কিশোর গ্যাং এর বিরুদ্ধে সব সময় সজাগ রয়েছি। অভিভাবকদের বিশেষ ভাবে অনুরোধ করব, আপনাদের সন্তানদের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি রাখুন, কাদের সাথে মিশে/চলাফেরা করে তা খেয়াল রাখুন। ’

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মুগদা থানায় পৃথক দুটি মামলা রুজু হয়েছে

 


Search News




©2020 Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD