মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:০১ অপরাহ্ন

আপডেট
*** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***                     *** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***

বেনাপোলে ক্ষমতার দাপটে সাবেক চেয়ারম্যানের মাতলামী! শীক্ষার্থীরা আতঙ্কে

বেনাপোলে ক্ষমতার দাপটে সাবেক চেয়ারম্যানের মাতলামী! শীক্ষার্থীরা আতঙ্কে

সুমন হোসাইনঃ
শার্শা উপজেলার বেনাপোল ইউনিয়ন পরিষদের পোড়াবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শ্রেনিকক্ষে প্রবেশ করে মাতলামি করলেন ০২ নং লক্ষনপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কামাল হোসেন ভূঁইয়া। সে বাহাদুরপুর সাত্রা পাড়া গ্রামের নাজিম উদ্দীন ভুঁইয়ার ছেলে। এ ঘটনায় শার্শা উপজেলা জুড়ে নিন্দার ঝড় উঠলেও প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা হওয়ার সুবাধে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে সচেষ্ট রয়েছে একটি মহল।

বুধবার (১৬আগস্ট) দুপরে বেনাপোল পোড়াবাড়ী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টিতে পাঠদানকালীন সময়ে শিশুদের শ্রেণিকক্ষে আচমকা মদ্যপ অবস্থায় প্রবেশ করে মাতলামি শুরু করলে স্কুলের কোমলমতি শিশুদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে বলে জানাগেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,সরকার দলীয় সাবেক চেয়ারম্যান কামাল হোসেন কালো পাঞ্জাবী পরিহিত মদ্যপ অবস্থায় বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে মাতলামি শুরু করেন। এসময় শিশুদের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা জড়ো হয়ে বিতর্কিত চেয়ারম্যান কামালকে অবরুদ্ধ করে থানায় সংবাদ দেন। বেনাপোল পোর্টথানার এস আই লিখন সরকার ঘটনাস্থলে পৌছায়ে স্কুলের ভেতর থেকে উদ্ধার করে। এ সময় ক্ষিপ্ত জনগন ও শিক্ষকদের উত্তাক্ত পরিস্থিতি শান্ত করতে আশ^স্ত করেন যে,অপনারা অভিযোগ দিলে আমরা আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করিব। এসময় কোন অভিযোগ না পেয়ে মাতালকে তার পরিবারের সদস্যদের হাতে তুলে দেন। এই ঘটনায় এলাকাবাসি উপযুক্ত শাস্তির দাবি করে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন। বিদ্যালয়ে এ ধরনের ঘৃনীত কান্ড যাতে পুনারাবৃত্তি না হয় সে জন্য অভিযুক্ত মাতাল সাবেক চেয়ারম্যান কামালের শাস্তি দাবি করেছেন।

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইদ্রিস আলী জানান, সাবেক চেয়ারম্যান কামাল আমার স্কুলে দুপুর ১২ টার দিকে মদ্যপ অবস্থায় প্রবেশ করে। সে শ্রেনিকক্ষে প্রবেশ করে ভুলভাল বকতে থাকলে আমি স্কুলের সাবেক সভাপতি সহিদুজ্জামানকে জানালে তার সহয়তায় স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপে স্কুলের পরিবেশ স্বাভাবিক করা হয়।

বেনাপোল পোর্টথানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন ভূঁইয়া জানান, পোড়াবাড়ি গ্রাম থেকে আমাকে মুঠোফোনে ঘটনাটি জানালে আমি সাথে সাথে পোর্টথানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পাঠিয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করি। তবে উক্ত ঘটনায় এখনো পর্যন্ত থানায় কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


Search News




©2020 Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD