মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ১১:৫৩ অপরাহ্ন

আপডেট
*** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***                     *** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***
সংবাদ শিরোনাম :
শার্শার সাতমাইল পশু হাটে ব্যাপক অনিয়ম নিরব উপজেলা প্রশাসন! বেনাপোলে অনলাইন প্রতারক চক্রের দুই সদস্য আটক বেনাপোলে রাজস্ব কর্মকর্তার উপর হামলাকারীদের আটকের দাবিতে মানববন্ধন চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের তৎপরতায় মাদক সহ চালক গ্রেপ্তার চাকরি হারালেন ঘুষের টাকা সহ আটক কাস্টম কর্মকর্তা মুকুল বেনাপোলে প্রশাসনকে বোকা বানাতে স্বর্ণ চোরাকারবারিদের লোক দেখানো ব্যবসা বেনাপোলে কৃত্রিম যানজটের শিকার ৪ গ্রামবাসি সহ ভারতগামী পাসপোর্ট যাত্রীরা বাসার দরজার তালা ভেঙ্গে কয়েক লক্ষ টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুট, থানায় অভিযোগ দায়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে গ্যাস সিলিন্ডার রিফিল করা হচ্ছে সোনাইমুড়ীতে যৌতুকের মামলায় স্বামী শ্রীঘরে

কালকিনিতে যমজ নবজাতক কন্যা সন্তান নিয়ে বিপাকে বাবা

কালকিনিতে যমজ নবজাতক কন্যা সন্তান নিয়ে বিপাকে বাবা

কালকিনি(মাদারীপুর)প্রতিনিধিঃ

মাদারীপুরের কালকিনিতে তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে ১৯ দিন বয়সের যমজ নবজাতক দুই কন্যা সন্তান স্বামীর বাড়িতে একা ফেলে রেখে নিজের বাবার বাড়ি চলে গেছেন শানজিদা বেগম(১৯) নামে এক পাষান্ড গৃহবধু। এতে করে ওই দুই যমজ নবজাতক কন্যা সন্তান নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন বাবা। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী পরিবার সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার কাজীবাকাই এলাকার দক্ষিন মাইজপাড়া গ্রামের ফজল মোল্লার ছেলে হাচান মোল্লার সঙ্গে পৌর এলাকার মিনাজদী গ্রামের ফজলে হাওলাদারের মেয়ে শানজিদা বেগমের প্রায় দেড় বছর আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে শানজিদা বেগমের সঙ্গে তার স্বামী হাচানের সংসার সুখেই কাটে। এবং কি গত ১৯ দিন আগে শানজিদা বেগম একই সঙ্গে দুটি যমজ কন্যা সন্তান জন্মগ্রহন করে। কিন্তু পারিবারিক তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে ওই নবজাতক দুটি গত মঙ্গলবার শানজিদা বেগম স্বামী বাড়ি একা ফেলে রেখে তার বাবার বাড়ি চলে যায়। এতে করে হাচান মোল্লাকে তার নবজাতক দুই কন্যা সন্তান লালন-পালন করতে একা চরম হিমসিম খেতে হচ্ছে। এদিকে মায়ের বুকের দুধ না খেতে পেরে ওই যমজ নবজাতক দুটি বাবা হাচান মোল্লার কোলে বসে সারাদিন-রাত কান্না করছে। মায়ের অভাবে নবজাতক দুটির কান্না থামছে না।

যমজ নবজাতকের পিতা হাচান মোল্লা বলেন, আমার স্ত্রী কারনে এবং অকারনে একটু হলেই তার বাবার বাড়ি চলে যায়। এবার আমার দুটি বাচ্চা ফেলে রেখে চলে গেছে। তাকে আসতে বলে সে আসতে চায়না। এখন বাচ্চা দুটির কি হবে।

তবে শানজিদা বেগমের দাবি, শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে যন্ত্রনা দেয়ায় সে বাবার বাড়ি চলে গেছেন।

এ ব্যাপারে কাজীবাকাই ইউপি চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মোল্লা বলেন, আসলে বিষয়টি দঃখজনক। বিষয়টি সমাধান করে দেয়া হবে।


Search News




©2020 Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD