বুধবার, ১৯ Jun ২০২৪, ০১:১৩ পূর্বাহ্ন

আপডেট
*** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***                     *** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***
সংবাদ শিরোনাম :
শার্শার সাতমাইল পশু হাটে ব্যাপক অনিয়ম নিরব উপজেলা প্রশাসন! বেনাপোলে অনলাইন প্রতারক চক্রের দুই সদস্য আটক বেনাপোলে রাজস্ব কর্মকর্তার উপর হামলাকারীদের আটকের দাবিতে মানববন্ধন চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের তৎপরতায় মাদক সহ চালক গ্রেপ্তার চাকরি হারালেন ঘুষের টাকা সহ আটক কাস্টম কর্মকর্তা মুকুল বেনাপোলে প্রশাসনকে বোকা বানাতে স্বর্ণ চোরাকারবারিদের লোক দেখানো ব্যবসা বেনাপোলে কৃত্রিম যানজটের শিকার ৪ গ্রামবাসি সহ ভারতগামী পাসপোর্ট যাত্রীরা বাসার দরজার তালা ভেঙ্গে কয়েক লক্ষ টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুট, থানায় অভিযোগ দায়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে গ্যাস সিলিন্ডার রিফিল করা হচ্ছে সোনাইমুড়ীতে যৌতুকের মামলায় স্বামী শ্রীঘরে

নিরব ভূমিকায় শার্শা উপজেলা প্রশাসন!

নিরব ভূমিকায় শার্শা উপজেলা প্রশাসন!

সুমন হোসাইনঃ শার্শা উপজেলা প্রশাসনের অবৈধ কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে কোন অভিযান না থাকায় ফুলে ফেঁপে উঠেছে প্রভাবশালীরা। উপজেলা সূত্রে জানা গেছে গত ১২ ডিসেম্বর নয়ন কুমার রাজবংশী উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসাবে যোগদান করলেও এখন পর্যন্ত কোন অবৈধ স্থাপনা, অবৈধ কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে তিনি কোন অভিযান পরিচালনা করেননি। অভিযোগ আছে প্রভাবশালীরা উপজেলা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে দেদারছে বালু, মাটি উত্তোলন, ইটভাটা, করাতকল, ক্লিনিক পরিচালনা করে আসছে। শার্শা উপজেলা ব্যাপী অবাধে চলছে অবৈধ ১৯টি ইটভাটা। অনুসন্ধানে জানা গেছে ১৯টি ইটভাটার না আছে পরিবেশ ছাড়পত্র, না আছে জেলা প্রশাসনের অনুমোদন। এরপরও শার্শায় কোন অদৃশ্য শক্তিতে এসব অবৈধ ইটভাটাগুলোর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না প্রশাসন। একাধিক ভাটা আছে সরকারি স্কুল ও আবাসিক এলাকার মধ্যে। গত বছর ১৩ নভেম্বর হাইকোর্ট দেশের সব অবৈধ ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধে জেলা প্রশাসকদের ব্যবস্থা নিতে আদেশ দেন। হাইকোর্টের নির্দেশের পর দেশের বিভিন্ন স্থানে যখন অবৈধ ইটভাটার বিরুদ্ধে অভিযান চললেও শার্শা উপজেলাতে চিত্র ভিন্ন। এখানে প্রশাসন অবৈধ ইটভাটা বন্ধে কোন ব্যবস্থাই নিচ্ছে না। এছাড়াও আবাসিক এলাকার মধ্যে অবৈধ করাতকল থাকলেও কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা ব্যাপি চলছে মাটি বালু উত্তোলনের মহাউৎসব কোন অভিযান না থাকার কারনে কৃষি জমি থেকে প্রথমে গভীর করে মাটি উত্তোলন করে ইটভাটার চাহিদা মিটাচ্ছে। হাওর বাওর ও গভীর পুকুর থেকে দেদারছে চলছে বালু উত্তোলন।

বেনাপোল পৌরসভার বাহাদুরপুর রোড়ের বাসিন্দা ফারুক আহম্মেদ জানান,দীর্ঘ বছর যাবৎ বাহাদুরপুর রোড়ে আবাসিক এলাকার প্রানকেন্দ্রে অবস্থিত আলামিন স-মিল চালানোর কারনে স-মিলের বিকট শব্দ ও কাঠের গুড়ার কারনে অতিষ্ট এলাকাবাসী। একাধিকবার পৌরমেয়র সহ উপজেলা প্রশাসনের নিকট লিখিত অভিযোগ দিয়েও কোন প্রতিকার পাননি।

বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রায়পুরের বাসিন্দা ইসমাইল হোসেন জানান, সজনের ঘেরের পাশে ফসলি জমি থেকে বালু উত্তোলন করে বাড়ির পাশ দিয়ে দিনে ও রাতে দেদারছে বালুবাহী ট্রাক্টর-ট্রলি চলাচলের ফলে ধুলাবালির কারনে অতিষ্ট গ্রামবাসি। রাতেও ঘুমাতে পারছেন না এমনকি স্কুল পড়ুয়া ছেলে মেয়েরা পড়ালেখায় ব্যাপক বিঘ্ন ঘটছে। উপজেলা প্রসাশনের কোন তদরকি না থাকায় সাধারন মানুষ ব্যাপক ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।

বাহাদুরপুর ইউনিয়নের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের গুরুত্বপূর্ণ স্থান বাহাদুরপুর বাঁওড় থেকে জনসম্মুখে মেইন রডের সাথে ব্রীজের পাশে দেদারসে বালু উত্তোলন করে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। কিন্তু দেখার কেউ নেই ।এছাড়াও শার্শা উপজেলার গোগা ইউনিয়ন, কায়বা ইউনিয়ন, পুটখালী ইউনিয়ন, বাঁগআচড়া ইউনিয়ন, লক্ষণপুর ইউনিয়ন, শার্শা ইউনিয়ন, উলশী ইউনিয়ন সহ বিভিন্ন স্থানে অবাধে মাটি এবং বালু উত্তোলন করার একাধিক অভিযোগ থাকলেও নেই কোন কার্যকরী পদক্ষেপ।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নয়ন কুমার রাজবংশীকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, আমিও এমন কয়েকটি অভিযোগ পেয়েছি এবং কয়েকটি ইটভাটার সাথে কথা বলেছি তারা জানিয়েছেন বর্তমানে লাইসেন্স বন্ধ থাকায় তারা লাইসেন্স করতে পারছেন না। আর মাটি এবং বালুর সুনির্দিষ্ট অভিযোগ থাকলে সেটা সহকারী ভূমি কর্মকর্তাকে জানাবেন। এগুলো দেখার জন্য তিনি আছেন।


Search News




©2020 Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD