বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৯ অপরাহ্ন

আপডেট
*** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***                     *** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***

ময়মনসিংহে নলকূপ, ওয়াশ ব্লক স্থাপনে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতিতে ক্ষুব্ধ ভুক্তভোগীরা

ময়মনসিংহে নলকূপ, ওয়াশ ব্লক স্থাপনে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতিতে ক্ষুব্ধ ভুক্তভোগীরা

 

মোঃ সুলতান রহমান বাপ্পি ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি

ময়মনসিংহে নলকূপ, ওয়াশ ব্লক স্থাপনে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীর ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতিতে ক্ষুব্ধ ভুক্তভোগীরা

নলকূপ ওয়াশব্লক প্রকল্প নির্মাণে ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস হয়ে উঠেছে অনিয়মের স্বর্গরাজ্য । জানাযায়, নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে সরকারি এ অফিসটি চলে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তার নিজস্ব নিয়মে। অতিরিক্ত টাকা না দিলে এ অফিসে কোন সেবা পাননা সেবা গ্রহিতারা। দুর্নীতি ও ঘুষ বাণিজ্যে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে হালুয়াঘাট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মাঝে রয়েছে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া। স্থানীয় সেবা গ্রহিতারা মনে করেন অফিসটিতে দায়িত্বপালনকারী কর্মকর্তার একক আধিপত্য ও তার মনগড়া সিদ্ধান্তে চলছে লুটপাটের রাম রাজত্ব। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের নামমাত্র সাইনবোর্ড ব্যবহার করে উপজেলার সমস্ত ঠিকাদারী কাজ করছেন এ অফিসের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাজিব আহাম্মেদ। তাকে সহযোগিতা করছেন মেকানিক আব্দুল কুদ্দুস।

 

জানাযায়,তাদেরকে শেল্টার দিচ্ছেন স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। অফিসের সিন্ডিকেটের কারণে অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদ করার সাহস পাননা কেউ। সরকারি ফি জমা দেওয়ার পরও নানা অজুহাত দেখিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। আর এদিকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাকে দায়ী করছেন উপকারভোগীরা।

 

জানাযায়, উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাজিব আহাম্মেদ যোগদানের পর থেকে ওয়াশ ব্লক রানিং সহ ৫০টি, গভীর নলকূপ ১১২০ টি, পাইপ লাইন ও স্টাকচার সহ ১০ বাড়িতে পানি সরবরাহ ১৮ টি, ৪০ বাড়িতে পাইপ লাইন সহ ৩৮টি,গভীর নলকুব সহ পাবলিক টয়লেট ৪ টি, কমিউনিটি ক্লিনিকে ৮ টি,কমিউনিটি ক্লিনিক মেরামত ১০ টি, ১১২০টি নলকূপ সহ স্টাকচার, প্রাইমারি স্কুলে গভীর নলকুপ সহ হ্যান্ড ওয়াশ বেসিন ৪০টি টাইলসহ নির্মাণ করা হয়েছে।এসব নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত হয়েছে নিম্ন মানের সামগ্রী। নামমাত্র ঠিকাদার নিয়োগ দেখিয়ে লুটে নেওয়া হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

 

স্থানীয় ভুবনকুড়া ইউপি সদস্য ইউনুস আলী জানান, এক বছর আগে সরকারী ফি জমা দেন তিনি। এর পর থেকে বোরিং এর নামে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে প্রায় পঞ্চাশ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলের লোকজন। টাকা ও তিন বেলা খাবার না দিলে, বোরিং সুবিধা হবে না, কিছুদিন পর টিউবওয়েলে পানি থাকবে না, মিস্ত্রিরা ঠিকমতো কাজ করবে না, এসব নানা অজুহাত দেখাতে তাকে অফিসের লোকজন। নিরুপায় হয়ে তাদের কথা মতো সকল প্রস্তাব বাধ্য হয়ে মেনে নিতে হয়েছে। একদিকে মিস্ত্রি কর্তৃক অত্যাচার অন্যদিকে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরে দায়িত্বে থাকা লোকজনদের রুক্ষ আচরণে অতিষ্ঠ আমি সহ আমার পরিবারের লোকজন। এতকিছুর পরেও এখন পর্যন্ত সরকারি নলকুপ থেকে বঞ্চিত এই জনপ্রতিনিধি।

একই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য আক্কাস আলী বলেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান বর্তমান সংসদ সদস্য মাহমুদুল হক সায়েম তিনি অত্র ইউনিয়নে ২০২২-২৩ অর্থবছরে পাঁচটি গভীর নলকূপ দিয়ে ছিলেন। এখন পর্যন্ত একটি নলকুপের কাজও সম্পন্ন হয়নি। তিনি একাধিকবার জনস্বাস্থ্য অফিসে গিয়ে যোগাযোগ করলেও কোন সমাধানের আশ্বাস খুঁজে পাইনি। একপর্যায়ে মন্তব্য করে বলেন এটি জনসাস্থ্য অফিস নয় এটি ভোগান্তি অফিসের নামকরণ করা হলে আরো ভালো হতো।

উপজেলার স্বদেশী গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন জানান, সরকারী নলকুপ নিতে গিয়ে নানা লাঞ্ছনা বঞ্চনার শিকার হয়েছেন তিনি। বোরিং এর সময় ১০-১২ জন লোক টানা ১৫ দিন তিনবেলা খাওয়াতে হয়েছে তার। বোরিং করার মেশিনের তেল খরচ থেকে শুরু করে তাদের প্রত্যেকের পকেট খরচ দিতে হয়েছপ তার । এ নিয়ে অতিরিক্ত প্রায় ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা খরচ করেও এখন পর্যন্ত নলকূপের স্ট্রাকচার ও পানির ট্যাংক কপালের জোটে নাই তার। অফিসে একাধিকবার যোগাযোগ করেও কোন সুরাহা মেলেনি।

এ বিষয়ে ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হয়নি হালুয়াঘাট জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উপ-সহকারী প্রকৌশলী রাজিব আহাম্মেদ। তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আবিদুর রহমান , বলেন, কিছু কিছু অভিযোগ আমি পেয়েছি, সরজমিনে তদন্ত সাপেক্ষে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মাধ্যমে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ ব্যাপারে জনস্বাস্থ্যের জেলা নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ জামাল হোসেন বলেন,অভিযোগের সত্যতা প্রমানিত হলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 


Search News




©2020 Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD