বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন

আপডেট
*** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***                     *** সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698  ***              সিসি ক্যামেরা সিস্টেম নিতে যোগাযোগ করুন - 01312-556698 ***
সংবাদ শিরোনাম :
বেনাপোলে কৃত্রিম যানজটের শিকার ৪ গ্রামবাসি সহ ভারতগামী পাসপোর্ট যাত্রীরা বাসার দরজার তালা ভেঙ্গে কয়েক লক্ষ টাকার স্বর্ণালঙ্কার লুট, থানায় অভিযোগ দায়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভাবে গ্যাস সিলিন্ডার রিফিল করা হচ্ছে বেনাপোল বন্দরে গেটপাশ কারসাজিতে পচনশীল পণ্য শুল্ক ফাঁকির অভিযোগ সোনাইমুড়ীতে যৌতুকের মামলায় স্বামী শ্রীঘরে রাত ৮টার পর শপিং মল-বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান বন্ধের আহ্বান বিদ্যুৎ বিভাগের দাবদাহের মধ্যে ঢাকার বায়ু আজ ‘খুব অস্বাস্থ্যকর’ হিটস্ট্রোকে নোয়াখালী এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু অবসর ভেঙে বিশ্বকাপে ফিরতে চান না নারাইন এ মৌসুমে আর মাঠে নামা হচ্ছেনা বার্সেলোনার ডি জংয়ের

মাঠে নামছে রাজউকের ২৪ টিম

মাঠে নামছে রাজউকের ২৪ টিম

রাজধানীর কোন এলাকায় কোন বিল্ডিং পরিকল্পনার বাইরে করা হয়েছে, নকশা, অনুমোদন বিল্ডিং কোড মানা হয়নিএমন হাইরাইজ বিল্ডিংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে রাজউকের ২৪ টিম মাঠে নামছে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ণ গণপূর্ত মন্ত্রী রেজাউল করিম

রোববার দুপুরে রাজউক অডিটোরিয়ামে এক বৈঠকে সাংবাদিকদের তথ্য জানান তিনি। রাজউক চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান গৃহায়ণ গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং রাজউকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন

গত বৃহস্পতিবার বনানীর ১৭ নম্বর রোডের এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এবং ঢাকা শহরের বিদ্যমান ভবণগুলো বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আশু করণীয় বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে বৈঠকের আয়োজন করা হয়

মন্ত্রী বলেন, ‘যেসব ভবনে পরিকল্পনা নকশা অনুযায়ী করা হয়নি সেসব ভবনের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব। নিয়মের বাইরে যেসব ভবন থাকবে সেগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, ‘১৯৯৬ থেকে ২০০৮এর পূর্ববর্তী সময়ে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা বা গ্যারেজ রাখার কোনো বিধান ছিল না। সে সকল ভবনের জন্য নতুন করে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রতিটি বিল্ডিং যারা ব্যবহার করবেন তারা ভাড়াটিয়া হিসেবে বা সেখানকার মানুষ হিসেবে আগে দেখে নিতে হবে যে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা আছে কি না। অতিরিক্ত সিঁড়ি লাগানো আছে কিনা বা সকল কিছু মেনে বিল্ডিং করা হয়েছে কিনা। যদি এসব নিয়ম মেনে না করা হয় তাহলে আপনি সেই সেই ভবনটি ব্যবহার করবেন না।

রেজাউল বলেন, ‘আমাদের তদন্ত কমিটির রিপোর্ট হওয়ার পর আমরা এটা জনসম্মুখে জাতীয় পত্রিকায়, টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন আকারে প্রকাশ করব। কারণ, দেশের মানুষের জানা দরকার অর্থলোভী মানুষরূপী যারা এভাবে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণ করে জানমালের নিরাপত্তা রক্ষা করেনি তাদের চেহারা দেশবাসীর দেখা উচিত।

তিনি বলেন, ‘রাজউকের অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থাপনায় সকল রেকর্ড থাকতে হবে। যেসব রেকর্ড পাওয়া যাচ্ছে না, মিসিং আছে সেইসব ভবনের বিষয়ে আমরা আবার পরিদর্শন করে রেকর্ডটা নথিভুক্ত করব।

পহেলা মে থেকে রাজউকের সকল সেবা ডিজিটালাইজেশন হবে। এর মাধ্যমে জনগণের ভোগান্তি দূর হবে এবং রাজউক জনবান্ধব প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে বলে জানান রেজাউল

তিনি বলেন, ‘বিল্ডিংয়ে কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে আগে আমরা শুধুমাত্র বিল্ডিং মালিক এবং ডেভেলপার কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতাম। কিন্তু এখন আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেব।


Search News




©2020 Daily matrichaya. All rights reserved.
Design BY PopularHostBD